পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলনের সম্মুখীন হলাম

Share with associates
শীতের সকালে একদিন

উপরের ছবিতে আমার বাম পাশে পেছনে যে সিট দেখতে পাচ্ছেন, সেটার আসলে বাস্তব অস্তিত্ব নেই, এটা একটা প্রতিবিম্ব মাত্র। তাহলে ওটা কি আয়না? না, ওটা সাধারণ কাচ। নিম্নমানের বাসে যে ধরনের কাচ উইন্ডো হিসেবে ব্যবহৃত হয় সেটা। তাহলে এখানে কী ঘটলো?

এখানে যেটা ঘটলো সেটা হলো পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন। আমি যে সিটে বসেছি তার ঠিক পিছনের একটি সিট এভাবে পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলনের মাধ্যমে পাশ থেকে দেখা যাচ্ছে। বস্তুতঃ ঐ সিট হতে আমার পাশের গ্লাসে আলো অনেক বেশি কোণে আপতিত হয়েছে, যা বায়ুর সাপেক্ষে ঐ গ্লাসের ক্রান্তি কোণের চেয়ে বড়। একারণে পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন ঘটেছে।

ক্রান্তি কোণ কী?

আমরা জানি, আলোকরশ্মি (আলোকীয়) ঘনতর মাধ্যম থেকে লঘুতর মাধ্যমে গেলে তা আপতন বিন্দুতে অঙ্কিত অভিলম্ব হতে দূরে সরে যায়। তাহলে এমন একটি আপতন কোণ নিশ্চয়ই আছে যার জন্য প্রতিসরণ কোণ ৯০ ডিগ্রী হয়, অর্থাৎ প্রতিসরিত রশ্মি মাধ্যমদ্বয়ের বিভেদতল ঘেঁষে যায়। আপতন কোণের এই মানকে হালকা (লঘু) মাধ্যম সাপেক্ষে ঘন মাধ্যমের ক্রান্তি কোণ বলে।

পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন কী?

আলোকরশ্মি ঘন হতে লঘু মাধ্যমে যাওয়ার সময় আপতন কোণ মাধ্যমদ্বয়ের ক্রান্তি কোণ অপেক্ষা বড় হলে কোনোরূপ প্রতিসরণ না ঘটে সম্পূর্ণ আলোকরশ্মি প্রথম মাধ্যমে অর্থাৎ ঘন মাধ্যমে প্রতিফলিত হয়, প্রতিফলনের নিয়ম মেনে। এ ঘটনাকে পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন বলে। সাধারণ প্রতিফলন অপেক্ষা পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন ভালো – এ কারণে যে, সাধারণ প্রতিফলনে সর্বোচ্চ প্রায় ৪০-৫০% আলো প্রতিফলিত হয়, কিন্তু পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলনে ১০০% আলো প্রতিফলিত হয়। এ কারণে পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলনের ফলে সৃষ্ট বিম্ব বেশি উজ্জ্বল দেখায়।

আলোর বর্ণ বিবেচ্য

কোন বর্ণের আলোকরশ্মি বিবেচনা করা হচ্ছে তার উপর ক্রান্তি কোণ ও পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন নির্ভর করে, একজোড়া নির্দিষ্ট মাধ্যমের ক্ষেত্রেও। সাধারণ অভিজ্ঞতায় বলা যায়, একজোড়া নির্দিষ্ট মাধ্যমের ক্ষেত্রে বেগুনী আলোর জন্য ক্রান্তি কোণ যা হবে, লাল আলোর জন্য ক্রান্তি কোণ তার তুলনায় বেশি হবে। কারণ মাধ্যম পরিবর্তনের সময় লাল আলোর তুলনায় বেগুনি আলো বেশি বেঁকে যায়।

Share with associates

Leave a Reply

Your email address will not be published.